তারিখ : ২৭ মে ২০২০, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

পেটের দায়ে এলাকা ছাড়ছে ধান কাটা শ্রমিকরা

করোনা আতঙ্কের মধ্যেও পেটের দায়ে এলাকা ছাড়ছে ধান কাটা শ্রমিকরা
[ভালুকা ডট কম : ২৩ এপ্রিল]
ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়। পেটের ক্ষুধা মানেনা কোন আইনকানুন-রীতিনীতি। তারই প্রমাণ মিলে পেটের দায়ে যখন করোনাকে উপেক্ষা করে নিজ এলাকা ছাড়ে ধান কাটার শ্রমিকরা। বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস এক মারাত্মক প্রাণঘাতী ব্যাধি। যা বাংলাদেশের ৫৬টির অধিক জেলায় সংক্রমিত হয়েছে এই মহামারী করোনা ভাইরাস। এই করোনার মৃত্যুভয়কে উপেক্ষা করে পেটের দায়ে ঘর থেকে বের হতে বাধ্য হচ্ছে বিভিন্ন পেশার শ্রমিকরা।

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার নান্দাইল চৌরাস্তা চত্বরে মহাসড়কের উপর বিভিন্ন উপজেলা হতে আগত অপেক্ষারত শ্রমিকদের দেখা যায়। কেউ পায়ে হেটে, কেউবা অটোরিক্সায়, পিকআপ ও ভ্যানে করে সুদূর কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা, মিঠামইন, অস্টগ্রাম, নেত্রকোনা জেলার কালিয়াজুড়ি এসমস্ত বোরো হাওড় অঞ্চল এলাকায় পাড়ি জমাচ্ছে। জানাযায়, তাদের অনেকে দিনমজুর, ফার্ণিচার, রাজমিস্ত্রী, চা ব্যবসায়ী, কাঠমিস্ত্রী, ছোটখাট মুদি ব্যাবসায়ী, কাপড় ব্যবসায়ী, টেইলার্স ইত্যাদি বিভিন্ন পেশার মানুষ। করোনার কারনে তারা কর্মহীন হয়ে পড়ায় পরিবারকে বাচাঁতে বোরো মৌসুমে ধান কাটতে নিজ এলাকা ছেড়ে অন্যত্র দূরের পথ হাটছে।

ধান কাটায় আগ্রহী হাবিবুর রহমান ও জুলহাস নামে শ্রমিকের সাথে কথা বলে জানায়, কি করবো ভাই, সবকিছু বন্ধ। পরিবারের খাবার খরচতো যোগাতে হবে। রুবেল নামে এক শ্রমিক জানায়, ঘরে বসে বসে খাওয়ার মতো আমাদের টাকা-পয়সা নেই। আর আমাদের কে খাওয়াবে ? ওহ. সরকারের এক পুটলা খাবার কয়দিন যাবে ? পরিবারে ৫/৭জন সদস্য রয়েছে। অন্যআরেক জন শ্রমিক বলে উঠে, এমনিতেই পরিবার নিয়ে টেনশনে আছি, অস্ট্রগ্রাম যাবো কোন ধরনের গাড়ি পাচ্ছিনা, রাস্তায় রাস্তায় নাকি বাধা। তার উপর আর প্রশ্ন করবেন না ভাই। অবসাদগ্রস্থ মলিন দেহে এমন কথাগুলোই বলে ধান কাটার শ্রমিকরা।

ধান কাটার জন্য অন্যত্র যাওয়ার কোন অনুমতি আছে কিনা? সে বিষয়ে প্রশ্ন করলে তারা জানায়, তাদের অনেকেই স্ব-স্ব উপজেলার ইউএনও ও কৃষি অফিসারের নিকট থেকে অনুমতি পত্র নিয়ে এসেছে। এ বিষয়ে মানবাধিকার সংগঠক এনামুল হক বাবুল জানান,সঠিক সময়ে বোরো ধান ঘরে উঠাতে না পারলে দেশে খাদ্য সংকট দেখা দিতে পারে। সে লক্ষ্যে ধান কাটা শ্রমিকদের জন্য প্রশাসনের সহযোগীতায় পরিবহনের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট পরিবহন বাসের মাধ্যমে শ্রমিকদের যাতায়াত নিশ্চিত করা প্রয়োজন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

লাইফস্টাইল বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৫০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই