তারিখ : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বিএনপিকে দায়ি করে ক্যাসিনোর দায় সরকার এড়াতে পারে না

বিএনপিকে দায়ি করে ক্যাসিনোর দায় সরকার এড়াতে পারে না-ন্যাপ মহাসচিব
[ভালুকা ডট কম : ২১ সেপ্টেম্বর]
রুপপুরের বালিশের পর সাড়ে ৫ হাজার টাকার বই সাড়ে ৮৫ হাজার, একটি পর্দা ৩৭লাখ, একটি ঢেউ টিন ১লাখ এসবে দেখে স্পস্টতই প্রমানিত হচ্ছে দেশে চলছে হরিলুট আর লাগামহীন দুর্নীতি বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর চলমান লড়াইকে জাতি স্বাগত জানায়। রাজনীতিতে রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকতে পারে, কিন্তু, দুর্নীতিমুক্ত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীর লড়াইকে সমর্থন করা উচিত। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসাইন মুহম্মদ এরশাদ স্মরণে বাংলাদেশ জনতা লীগ আয়োজিত স্মরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের অর্থ বিদেশে কারা পাচার করছে? দেশের অর্থনীতির লুটপাটের বরপুত্র কারা? দেশের ব্যাংকিং খাতের অবস্থা কেন নাজুক? ব্যাংকের টাকা লুট করেছে কারা? কারা শেয়ারবাজারকে লুট করে নিয়ে কবরে শুইয়ে দিয়েছে? জনগনের এসকল প্রশ্নের সমাধাণ করতে হবে। আমাদের জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে অন্তরায় হিসাবে নানাবিধ কারণ থাকলেও প্রধান অন্তরায় হচ্ছে লাগামহীন দুর্নীতি। ‘দুর্নীতিমুক্ত’ বলা যাবে রাষ্ট্রের এমন কোনো সেক্টর নেই। সঙ্গত কারণেই আমাদের দেশে দুর্নীতির বিস্তৃতি ঘটতে ঘটতে এখন সর্বগ্রাসী রূপ নিয়েছে। দুর্নীতি একেবারে অপ্রতিরোধ্য বললেও অতুক্তি হবার কথা নয়। যা আমাদের জাতিস্বত্ত্বাকে মারাত্মক হুমকির মুখে ফেলেছে। সুতরাং প্রধানমন্ত্রীকে জাতির স্বার্থে-রাষ্ট্রের স্বার্থে এই সকল কিছুর বিরুদ্ধে তার লড়াই অব্যাহত রাখবে বলে বিশ্বাস করি। প্রধানমন্ত্রীর এই লড়াইয়ে দেশ-জাতি-জনগন সকল সময়ই তার পাশে থাকবে।

তিনি 'বিএনপি ক্যাসিনোর জন্ম দিয়েছে' বলে আ'লীগ সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যের প্রতিবাদ করে বলেন, বিএনপিকে দায়ি করে ক্যাসিনোর দায় সরকার এড়াতে পারে না। দীর্ঘ দিন ক্ষমতার থাকার পর তার এই বক্তব্য কিছুতেই গ্রহন যোগ্য হবে না, হতে পারে না।

ন্যাপ মহাসচিব সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বলেন, উত্থান-পতন, সাফল্য-ব্যর্থতায় বর্ণিল জীবনের অধিকারী হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ প্রবল প্রতিরোধের মুখেও একটি রাজনৈতিক সংগঠন ধরে রেখেছিলেন ও বহু অনুসারী সৃষ্টি করেছেন। তিনি ইতিহাসের পাতায় অমোচনীয় স্বাক্ষর রেখে গেছেন।

জনতা লীগ চেয়ারম্যান শেখ ওসমান গনি বেলালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলের উপনেতা গোলাম মুহম্মদ কাদের, আলোচনায় অংশগ্রহন করেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল কংগ্রেস চেয়ারম্যান শেখ শহীদুজ্জামান, এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, লেবার পার্টি চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদী, মহাসচিব আবদুল্লাহ আল মামুন, বিডিপি চেয়ারম্যান শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, যুব মিশন সভাপতি কামরুজ্জামান সুরুজ, বিজেএল নেতা আল আমিন খান সাগর, মো. সামাদ মিয়া প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টি প্রেসিডিয়াম সদস্য আলমগীর সিকদার লোটন, চেয়ারম্যানে উপদেষ্টা ড. নুরুল আজহার, যুগ্ম মহাসচিব ফখরুল আহসান শাহজাদা, সুলতান মাহমুদ, ছাত্র বিষয়ক সহ-সম্পাদক মিজানুর রহমান মিয়া, বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু প্রমুখ। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই