তারিখ : ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় হাইওয়ে ও থানা পুলিশের হয়ারনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ

ভালুকায় হাইওয়ে ও থানা পুলিশের হয়ারনীর প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শন
[ভালুকা ডট কম : ১৪ সেপ্টেম্বর]
ভালুকায় ব্যাটারী চালিত রিক্সা,সিএনজি’র ড্রাইভারদেরকে হাইওয়ে ও থানা পুলিশের হয়রানী করার প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে উপজেলার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ক্ষোব্ধ ড্রাইভাররা ঘন্টা ব্যাপী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় বিক্ষোভ কারীরা পুলিশের বিচার দাবী করেন।

বিক্ষোভ কারীরা অভিযোগ করেন,মহা সড়কের পাশে রিক্সা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকলেও হাইওয়ে পুলিশ ও ভালুকা মডেল থানার এস,আই আমিনুুল ইসলাম রিক্সা ধরে নিয়ে যায়। যদি ঘটনাস্থলে টাকা দিয়ে সামাধান করতে না পারে তাহলে থানায় নিয়ে যায়। রিক্সা অথবা সিএনজি থানায় নিয়ে যাওয়ার পর ৮/১০হাজার টাকা রফা করে থানা থেকে ছাড়িয়ে আনতে হয়। আর হাইওয়ে ফাঁড়িতে নিয়ে গেলে আটককৃত গাড়ি ফেরৎ পাওয়া যায় না। অনেক সময় সিএনজি গ্যাস ভরার জন্য মহা সড়কে খালি গাড়ি নিয়ে গ্যাস পাম্পে যাওয়ার সময় পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ কোনো সময় অটো রিক্সা আটক করলে ঘটনাস্থলে ৩/৪হাজার টাকা দিয়ে রফা করে না রেখে দিলে ওই রিক্সা আর ফেরৎ পাওয়া যায় না। ভরাডোবা হাইওয়ে পুলিশ ও থানার এসআই আমিনুলের অত্যাচারে হতদরিদ্র ৬০/৭০জন রিক্সাওয়ালারা আজ নিঃস্ব হয়ে পথে বসে গেছে। এ সব রিক্সাওয়ালা বিভিন্ন সমিতি ও দাদন ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে সুদে ঋণ ধার করে ৮০/৯০হাজার টাকা দিয়ে একটি ব্যাটারিরিক্সা কিনার পর পুলিশ ধরে নিয়ে গেলে কোনো ভাবেই ফেরত না পেলেও সমিতির ঋণের কিস্তি চলাতে হচ্ছে। তাই ক্ষোব্ধ হয়ে এ বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে। তারা অবিলম্বে আটককৃত রিক্সা ফেরৎ চেয়ে এস,আই আমিনুলকে প্রত্যাহারের দাবী করেন।

ডুবাইলিয়াপাড়া রিক্সা চালক নাজমুল হক জানান, আমি রিক্সা রেখে কাঁচা বাজার করতে গিয়ে ছিলাম এ সময় এস,আই আমিনুল আমার রিক্সা আটক করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তাঁকে টাকা দিয়ে রিক্সাটি রেখে দেই।

কাশর এলাকার রিক্সা চালক জামাল উদ্দিন জানান, গত ৩/৪দিন পূর্বে রিক্সা নিয়ে মাস্টারবাড়ি বাসস্ট্যান্ডের পাশে দাড়িয়ে ছিলাম এ সময় হাইওয়ে পুলিশ আমার রিক্সাটি নিয়ে যেতে চাইলে ৪হাজার টাকা দিয়ে রিক্সাটি রেখে দেই।

ভালুকা মডেল থানার এস আই আমিনুল ইসলাম,এ সকল অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন একটি মটর সাইকেলের মামলা দেয়ায় তারা আমার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেছেন। ভরাডোবা হাইওয়ে ফাড়ির ইনচার্জ শাহ জালাল জানান, মানুষ যদি আমাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে এটা আমাদের জন্য ভাল ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বুঝবে আমরা ঠিকমত কাজ করছি।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯২৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই