তারিখ : ২২ জুলাই ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

রাণীনগরে বিবাদীর হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় বিধবা

রাণীনগরে বিবাদীর হুমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় দুই মেয়ে নিয়ে বিধবা
[ভালুকা ডট কম : ১৮ জুন]
নওগাঁর রাণীনগরে বিবাদীদের বিভিন্ন হুমকি-ধামকীতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বাদী বিধবা গৃহবধূ আপরোজা সুলতানা (৩৮)। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার লোহাচ’ড়া গ্রামে।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, জমিজমা নিয়ে নিজের দেবরের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলে আসছে মৃত- আনোয়ার হোসেন বকুলের স্ত্রী আফরোজা সুলতানার। সুলতানার দেবর লোহাচুড়া গ্রামের মৃত-আমজাদ হোসেন খন্দকারের ছেলে সুলতান আরফিন বুলু গত ১২-০৬-১৯তারিখে গৃহবধূ সুলতানা ও তার মেয়েদের নামে থাকা ভিটা, বসতবাড়িসহ ২.৫০শতাংশ জমি জোর করে দখল করতে আসে। এসময় কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে বুলু ও তার লোকজনেরা বিধবাকে মারপিট করতে লাগলে বিধবার চিৎকারে তার দুই মেয়ে এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারপিট করে। এর এক পর্যায়ে বুলুর হুকুমে তার লোকজন বিধবার বাক প্রতিবন্ধি মেয়ে কলিকে হত্যার উদ্দেশ্যে বিষাক্ত পয়জন খাওয়ায়। এসময় আশেপাশের লোকজন ছুটে আসলে বুলুসহ তার লোকজন পালিয়ে যায় এবং কলিকে প্রথমে রাণীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বর্তমানে কলি সুস্থ্য অবস্থায় বাড়িতে রয়েছে। কিন্তু বুলু তার লোকজনের বিভিন্ন হুমকি-ধামকীতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে বিধবা সুলতানা ও তার মেয়েরা। এমতাবস্থায় বিধবা সুলতানা বাদী হয়ে দেবর বুলুকে প্রধান করে ৮জনের বিরুদ্ধে গত ১৫-০৬-১৯ইং তারিখে রাণীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

সুলতান আরফিন বুলুর মুঠোফোনে বন্ধ থাকার কারণে তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএসএম সিদ্দিকুর রহমান বলেন এই বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

জীবন যাত্রা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই