তারিখ : ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ঝুঁট ব্যবসা নিয়ে আবারো সন্ত্রাসী হামলায় ৩জন আহত

ভালুকায় ঝুঁট ব্যবসা নিয়ে আবারো সন্ত্রাসী হামলায় ৩জন আহত
[ভালুকা ডট কম : ০৭ মে]
ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া এলাকায় মাহদিন সুয়েটার ফ্যাক্টোরি ঝুঁটসহ বিভিন্ন ব্যবসায় নিয়ে আবারো সন্ত্রাসী সালাহ উদ্দিন বাহিনীর হামলা। এতে ৩জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত তিন জনকেই ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ওই কোম্পানির সামনে সোমবার সন্ধ্যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভালুকা উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়,ওই এলাকার মাহদিন সুয়েটার ফ্যাক্টোরিতে ঝুঁটসহ বিভিন্ন ব্যবসায় করতো স্থানীয় জমি বিক্রিতা ইসলাম মাতাব্বরসহ কয়েকজন। বছর খানে পূর্বে সালাহ উদ্দিন সরকার তাঁর বাহিনী নিয়ে ওই ফ্যাক্টরীর ঝুঁট ব্যবসা জোর করে নিয়ে যায়। গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পর ইসলাম মতাব্বরগণ পূনঃরায় ফ্যাক্টোরির মালিকের কাছ থেকে তাঁর নামে ঝুঁটসহ সব ধর ব্যবসার কার্যাদেশ নিয়ে আসেন।এ ঘটনার জেরধরে সোমবার সন্ধ্যায় সালাহ উদ্দিন তাঁর প্রাইভেটকার যোগে মাহদিন সুয়েটার ফ্যাক্টোরির সামনে এসে দাড়ায়।

কিছুক্ষণের মাঝে হেলমেট পরিহিত আনোয়ার,শারফুল, সোরহাব, সাদ্দামের নেতৃত্বে ১০/১৫জনের একটি দল মোটর সাইকেল যোগে সালাহ উদ্দিনের প্রাইভেট কারের পাশে দাড়ায় এ সময় সালাহ উদ্দিন তাঁর প্রাইভেট কারের পিছনের ডালা খোলে দিলে  মোটর সাইকেল দিয়ে আসা বাহিনীর লোকজন সেখান থেকে দা,রড,হকিস্টিক,নিয়ে অতর্কিতে হামলা করে। এতে উপজেলার জামিরদিয়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে জয়নাল(২০), রজব আলীর ছেলে আজিজুল হক ও  শাহাব উদ্দিনের ছেলে হালিম(৩৮) গুরুতর আহত হন।  রক্তাক্ত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় পর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে।

হালিম জানান,সালাহ উদ্দিন জামিরদিয়া এলাকার একটি মূর্তিমান আতঙ্ক, ভূমি দস্যু ও সন্ত্রাসী। তাঁর একটি সন্ত্রাসী বাহিনী রয়েছে যাদের কাছে রয়েছে অবৈধ আগ্নেঅস্ত্র। তাঁর বাহিনীর লোকজন এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসায় সহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাচ্ছে। বর্তমানে আমরা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছি। স্কুল পড়ুয়া ছেলে মেয়েরা কোচিং এ কিভাবে যাবে? তাদেরকে নিয়ে আতঙ্কের মাঝে রয়েছি। যে কোনো সময় আমাদের ছেলে মেয়েদেরকে সালাহ উদ্দিন বাহিনীর লোকজন অপহরণ করে নিয়ে যেতে পারে।

সালাহ উদ্দিননের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে সে জানান আমি ওই ঘটনা সাথে জড়িত নই। আমি দাড়িয়ে থাকা অবস্থায় আমার সামনে হামলা হয়। ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাইন উদ্দিন জানান,ঘটনাটি আমি শুনে সাথে সাথে পুলিশ পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো অভিযোগ পায়নি। পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

প্রসঙ্গ,গত ৩০এপ্রিল ওরিয়ন কোম্পানির ঝুঁট ব্যবসা নিয়ে সালাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে তাঁর বাহিনী জামিরদিয়া এলাকার ওমর আলী মন্ডলের ছেলে নজরুল ইসলাম (৫০)কে দা দিয়ে কোপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। ওই ঘটনায় ফেরদৌস মন্ডল বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা করেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই