তারিখ : ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে ৫০টি ‘স’মিলের মধ্যে লাইসেন্স আছে ১টির’

রাস্তার উপর গাছের ডোম ও বিল্ডিং নির্মাণ সামগ্রী রাখার হিড়িক
নান্দাইলে ৫০টি ‘স’মিলের মধ্যে লাইসেন্স আছে ১টির’
[ভালুকা ডট কম : ২৫ এপ্রিল]
ময়মনসিংহের নান্দাইলে কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ হাইওয়ে, চৌরাস্তা-কেন্দুয়া এবং নান্দাইল-তাড়াইল সিএন্ডবি রাস্তার উপর অবৈধভাবে গাছের ডোম ও বিল্ডিং নির্মাণ সামগ্রীর হিড়িক পড়েছে। এতে যানবাহন চলাচলে দূর্ভোগ ও যেকোন মুহুর্তে দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে।

সরজমিন গিয়ে দেখাযায়, নান্দাইল উপজেলার হাইওয়ে ও সিএন্ডবি রাস্তার পাশে বিভিন্ন ‘স’ মিল গড়ে উঠায় গাছ ব্যবসায়ীগণ রাস্তার উপর/রাস্তা ঘেষে গাছ রাখছেন তাদের সুবিধামতে। অত্র উপজেলায় ৫০টিরও বেশি ‘স’ মিল থাকলেও বৈধতা রয়েছে মাত্র একটির। যার ফলে দিন দিন রাস্তার পাশে অবৈধ ‘স’ মিল গড়ে উঠায় রাস্তার উপর দু-পাশেই রাখা হচ্ছে গাছের ডোম। কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ হাইওয়ে সড়কের মুশুলী বাজার, নান্দাইল উপজেলা সদর, চামটা বাজার, কানারামপুর বাজার সংলগ্ন, চকমতি বাজার এবং নান্দাইল- তাড়াইল সিএন্ডবি রাস্তার নান্দাইল রোড বাজার, গাংগাইল, বড়াইল বাজার ও নান্দাইল চৌরাস্তা- আঠারবাড়ী সড়কের বাশঁহাটি, শান্তিনগর নামক স্থানে রাস্তার উপর বিভিন্ন গাছের ডোম, বাশেঁর আটি, ইটের খামাল, বালুর ঢিপ ও স্যানিটারী সামগ্রী ইত্যাদি রাখা হচ্ছে যা আইনত অবৈধ তথাপি কর্তৃপক্ষকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে চলছে সেমস্ত সুবিধা বাদী লোকজন। শুধু তাই নয় যে কোন সময় মেইন রাস্তা উপর গাড়ী দাড় করিয়ে উক্ত গাছ, বাশঁ, ইট, বালু ইত্যাদি ব্যবসায়ীগণ তাদের মালামাল উঠানামা করে থাকার দৃশ্য প্রায়ই দৃশ্যমান হয়। তখন বিভিন্ন যানবাহন চালক সহ যাত্রী সাধারনের দূর্ভোগ পোহাতে হয় ও যানজট দেখা দেয়।

এ ব্যাপারে ‘স’ মিলের মালিকগণের সাথে কথা হলে তারা বলেন, রাস্তার পার্শ্বে রাখার কারন যেে কান মুহুর্তেই আমরা সেগুলো নিয়ে যাই এবং এখান থেকে সরবরাহ করতে সুবিধা হয়। এতে তেমন কোন অসুবিধা কাহারও হচ্ছে না। তবে যানচালক আল আমিন জানান ও হৃদয় জানান, দিন দিন রাস্তার পাশে ‘স’ মিল গড়ে উঠায় রাস্তার উপর গাছের ডোম সহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী রাখছে। এতে করে দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে।

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন যানবাহন চালক শ্রমিকগণ ও যাত্রী সাধারনরা। নান্দাইল বন বিভাগের কর্মকর্তা দিপাঙ্কর রায় জানান, নান্দাইলে ৫০টি ‘স’ মিল রয়েছে তন্মেধ্য একটির মাত্র ‘স’ মিলের বৈধতা আছে। আর বাকিগুলো লাইসেন্স এর প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই