তারিখ : ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বাংলা সনের জন্ম ও ইতিহাস "০" থেকে হয়নি শুরু

বাংলা সনের জন্ম ও ইতিহাস "০" থেকে হয়নি শুরু     
[ভালুকা ডট কম : ১২ এপ্রিল]
আামরা বাঙ্গালি ।আমাদের ভাষা বাংলা । বাংলাদেশের মানুষের নিজস্ব  ইতিহাসের , শিল্প ও সংস্কৃতির মতোই বাংলা সন ও এদেশের মানুষের নিগুঢ় বন্ধনে আবদ্ধ ।ইতিহাসের সুদীর্ঘ পথ ধরেই  বাংলা সনের উদ্ভব ঘটেছে ।

ইহুদী বা খ্রীষ্টাব্ধ সনের যেমন ইতিহাস রয়েছে, তেমনি হিজরী সনেরও  একটা নিজস্ব ইতিহাস রয়েছে ।লজ্জা এবং দু:খের কথা হলেও সত্যযে আমাদের দেশে শিক্ষিত লোক এবং শিক্ষার্থীরা অনেকেই বাংলা সন পত্তনের সঠিক ইতিহাস এবং কোন তারিখ থেকে বাংলা সন গণণা শুরু হয়েছে তা জানেন না  ।পক্ষান্তরে  খ্রীষ্টাব্দ এবং হিজরী সন গণণার ইতিহাস এবং উৎপত্তির চমৎকার ব্যাখ্যা  জানেন ।যেমন –ইছা (আঃ) বা যীশু খ্রীষ্টের জম্নের দিনকে শূণ্য ধরে পরের দিকের তারিখ গুলো খ্রীষ্টাব্দ আর পূর্বের দিকের তারিখ গুলো খ্রীষ্ট পূর্ব  ।তেমনি হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর হিজরতের তারিখ থেকে হিজরী সন রেওয়াজ চালু হয় ।অথচ যদি বাংলা সনের উদ্ভবকাল নিয়ে আলোচনা করা হয় তখন মানুষ নানা ধরনের উদ্ভট প্রশ্ন করে এবং বিষয়টি  যেন আমাদের নিজস্ব কোন বিষয়ই নয় এমন ভান করেন ।

সন শব্দটি আরবী ।সাল শব্দটি ফারসী, উভয়ের অর্থ  বৎসর বা বর্ষ ।বাংলা সনের উদ্ভব ঘটে মোঘল সম্রাট  আকবরের আমলে । সম্রাট আকবররই সর্ব প্রথম সুবেহ্ বাংলা বাংল প্রদেশ গঠন করেন ।ঐতিহাসিক প্রয়োজনে সম্রাট আকবর একটি  নতুন সন প্রবর্তণ করেন , তা আমাদের দেশে বাংলা সন হিসেবে গৃহীত হয় । সম্রাট আকবরের শাসনামলে প্রজাসাধারণের হিজরী সন অনুযায়ী রাজস্ব প্রদান এবং অন্যান্য কার্যাদি সুনির্দিষ্ট তারিখে বা মাসে সম্পন্ন করার অসুবিধার কথা সম্রাটের দরবারে পেশ করেন । সম্রাট আকবর পন্ডিত বর্গকে এই অসুবিধা দূরীকরণের একটা উপায় বের করার নির্দেশ দেন ।সেই নির্দেশ মোতাবেক সে কালের বিশিষ্ট জ্যোতিষ বিঞ্জানী  পন্ডিত ফতেউল্লাহ –সিরাজী বহু গবেষণা ও পরীক্ষা –নিরীক্ষা করে হিজরী সনের গণণাকে বাংলা সনের হিসাবের  স্থলে সৌর হিসাবের গণণার প্রক্রিয়া বের করেন । তার এই নতুন গণণার নামকরণ হয় এলাহী সন বা  ফসলী সন ।পরে তা বাংলা সনে রূপন্তরিত হয় ।এই সনের গণণার ভিত্তি ধরা হয় , সম্রাট আকবর মসনদে অধিষ্ঠিত হবার তারিখ থেকে ।সম্রাট আকবর মসনদে অধিষ্ঠিত হন ৯৬৩ হিজরী  মুতাবিক ১৫৫৬ খ্রীষ্টাব্দে ।আর বাংলা সনও গণণা শুরু হয় ৯৬৩ হিজরী থেকেই ।অর্থাৎ ৯৬৩ হিজরী কে  বাংলা ৯৬৩ সাল ধরে  গণণা শুরু হয় ।১৪২৪-৯৬৩=৪৬১ বছর বা ২০১৭-১৫৫৬=৪৬১ বছর ।

৪৬১ বৎসর আগে থেকে  বাংলা সনের গণণা কার্য শুরু হয় ।আবার কেউ যদি প্রশ্ন করেন বাংলা সনের উৎপত্তি প্রথম বৎসর কোনটি  তা হলে নির্দ্বিধায় কাটবো ৯৬৩ ।এ  ইতিহস  জানার পর  আবার কেউ কেউ প্রশ্ন করেন বাংলা সন ও হিজরী সনের মধ্যে  এই  ব্যবধান কেন ? ৯৬৩ হিজরী ও  ৯৬৩ বাংলা সন একত্র হয়ে গণণা শুরু হলেও  বর্তমান হিজরী সন ১৪৩৮ আবার বাংলা সন ১৪২৪ ।বাংলা সন ও হিজরী সনের মধ্যে  ব্যবধান প্র্য়াই  ১৪ বৎসর ।এই ব্যবধান হয় -** চন্দ্র বৎসর সংঘটিত ৩৫৪ বা ৩৫৫ দিনে । আর সৌর বৎসর গণণা করা হয় ৩৬৫ বা ৩৬৬ দিনে । প্রতি বৎসরে দুইয়ের মধ্যে ব্যবধান হয় ১১ দিন । ৪৬১ বৎসরে ১১ দিন করে ব্যবধানের কালে  মোট যে দিন আসে তা বৎসরে হিসাবে  এসে দাড়িঁয়ে প্রায়( ৪৬১ী১১)দিন বা ১৪ বৎসর ।সময় অতিবাহিত হবে  আর এই বাংলা সন ও হিজরী সনের মধ্যে ব্যবধানও বাড়তে থাকবে।

লেখক/বার্তা প্রেরক
মোঃ নূরুল ইসলাম (নূরু)
রিপোর্টার,শিক্ষা অনুরাগী
ডাকাতিয়া (-বালিয়াগড়া )ভালুকা ,ময়মনসিংহ ।



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

কলাম বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৪২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই